১১ টি অর্থ সঞ্চয়ের টিপস যা সকল ধনীরাই অনুসরণ করেন   ১১ টি অর্থ সঞ্চয়ের টিপস যা সকল ধনীরাই অনুসরণ করেন

১১ টি অর্থ সঞ্চয়ের টিপস যা সকল ধনীরাই অনুসরণ করেন

যেখানে আমাদের অনেকেই শুধুমাত্র ব্যক্তিগত খরচের ভারসাম্য রক্ষা করে এটা নিশ্চিত করতে চায় যে, আমাদের থাকার জন্য একটু জায়গা এবং খাওয়ার জন্য কিছু খাদ্য দরকার এবং সুযোগ হলে বাৎসরিক একটি ভ্রমণ অন্যদিকে অনেকের কাছেই এ সকল বিষয়ে কোন মাথা ব্যাথা নেই তারা দিব্যি সবকিছুই করছেন এবং স্বাচ্ছন্দ্যেই করছেন।

আমরা যতটুকু কাজ করি তারাও ততটুকই কাজ করে কিন্তু পার্থক্য গড়ে দেয় তাদের সঞ্চয়। আমরা আজ কিছু সর্বজনীন নিয়ম নীতি নিয়ে এসেছি এমন কিছু মানুষকে বিবেচনা করে যারা সত্যিকার অর্থেই এ সকল নিয়ম-নীতি পালন করেন। এজন্যই তারা ধনী। বিশ্বাস করুন অথবা নাই করুন এই ১১ টি বাস্তব অর্থ সঞ্চয়ের ট্রিক্সগুলো ধনী লোকেরা মেনে চলেন। এই নিয়মগুলো আপনি মেনে চললে আপনার সঞ্চয় সম্পর্কে ধারনাই পাল্টে যাবে।

১. ২৪- ঘন্টা নীতি

© depositphotos.com   © Gossip Girl / Warner Bros.

© depositphotos.com © Gossip Girl / Warner Bros.

ধনকুবেররা এই নিয়মটি মেনে চলেন। তারা একটি ব্যয়বহুল ক্রয়ের আগে কখনো দ্বিতীয়বার ভাবেন না কিংবা ভাবার প্রয়োজন হয় না, কিন্তু তারা কোন ব্যয় নির্বাহ করার আগে সকল কিছুই ২৪ ঘন্টার মধ্যে ভেবে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেন। আবেগ তাড়িত হয়ে কোন কিছুতে অর্থ ব্যয় করা প্রায়ই অপ্রয়োজনীয়। নিজেকে প্রশ্ন করতে হবে আপনি যে বিষয়ে অর্থ খরচ করতে চাচ্ছেন সেটা কি আপনার অভাব নাকি আকাঙ্ক্ষা? অভাব হলে ক্রয় করুন আকাঙ্ক্ষা হলে বর্জন করুন।

২. সবকিছু নগদে করুন

© depositphotos.com   © depositphotos.com

© depositphotos.com © depositphotos.com

মানিব্যাগ ব্যবহার এড়াতে হয়তোবা ক্রেডিট কার্ড ব্যবহার যথেষ্ট সহজ মনে হতে পারে। কিন্তু ট্রিট কার্ডের বকেয়া বিল গুলো কখনোই সুখকর নয়। সে সকল মানুষ যারা কৌশলগতভাবে অর্থ খরচ করে থাকেন তারা সবসময় কার্ডের চেয়ে নগদকেই বেশি প্রাধান্য দিয়ে থাকেন বিশেষ করে ছোট ছোট ক্রয়ের জন্য।

ধনীরা সবসময়ই যতটা সম্ভব দায় বা ঋণ থেকে দূরে থাকার চেষ্টা করেন। আপনি আপনার খাবারের টাকা গুলো নগদে প্রদান করা শুরু করতে পারেন এর সাহায্যে আপনি আপনার কার্ড এর বিবরণ এগুলো ব্রাউজারে না রেখে একটা খরচের লিস্ট চোখের সামনে রাখতে পারেন। এর ফলে আপনার খরচের দিকে খেয়াল থাকবে।

৩. একটা বাজেট তৈরি করুন এবং সে অনুযায়ী অর্থ পরিচালনা করুন

© depositphotos.com

© depositphotos.com

বিষয়টা গতানুগতিক মনে হলেও যথেষ্ট কার্যকর। ধনী ব্যক্তিরা তাদের খরচ এবং আঃ এর একটি বাজেট তৈরি করে এবং সে অনুযায়ী তাদের অর্থ পরিচালনা করে। অর্থায়নে অভিজ্ঞরা এই বাজেটকে ৫০/৩০/২০ বাজেট পদ্ধতি নামে অভিহিত করেন।

৪. সে সকল খাতে খরচ করুন যেগুলো থেকে আপনার উপার্জন হবে

© The Intern / RatPac Entertainment   © Confessions of a shopaholic / Touchstone Pictures

© The Intern / RatPac Entertainment © Confessions of a shopaholic / Touchstone Pictures

অর্থ সঞ্চয়ের জন্য আপনাকে অনেক বেশি কৃপণ হতে হবে না। ধনীরা সে সকল খাতেই অর্থ খরচ করেন যেগুলো থেকে তাদের দীর্ঘ মেয়াদে আয়ের গ্যারান্টি থাকে। সে সকল বিষয় অর্থ খরচ করুন যেগুলো আপনার কাজের সাথে সংশ্লিষ্ট, আপনার বর্তমান কাজে অবদান রাখতে পারে এবং বর্তমান আয়ের সাথে আরও কিছু বাড়তি আয় যুক্ত করতে পারে।

৫. সে সকল সেবা খাতে বিনিয়োগ করুন যেগুলো আপনার সময় বাঁচাবে

© depositphotos.com   © depositphotos.com

© depositphotos.com © depositphotos.com

বিখ্যাত ম্যাগাজিন বিজনেস ইনসাইডারের তথ্য অনুযায়ী, ধনীরা কখনোই সে সকল সেবামূলক খাতে বিনিয়োগ করতে লজ্জাবোধ করেন না যেগুলি তাদের সময় বাঁচাবে এবং মানসিক চাপ থেকে মুক্ত রাখবে। তারা ব্যয় করার চেয়ে বিনিয়োগে বেশি গুরুত্ব দেন।

নিত্য প্রয়োজনীয় মুদি সামগ্রী হোম ডেলিভারির মাধ্যমে বাসায় আনা, লন্ড্রি সার্ভিস ব্যবহার, কাজের স্থান এর কাছাকাছি কোথাও উচ্চ মূল্যে ফ্ল্যাট ভাড়া নেয়া আপনার জীবনের সাথে কিছু মূল্যবান সময় যুক্ত করবে। এই বিষয়গুলোতে আপনার কিছু অর্থ খরচ হতে পারে কিন্তু আপনাকে এমন কিছু মূল্যবান সময় দেবে যা আপনার জীবনে সুখী হওয়ার জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।

৬. অভিজ্ঞতা গুরুত্বপূর্ণ

© WIld / Fox Searchlight   © Confessions of a shopaholic / Touchstone Pictures

© WIld / Fox Searchlight © Confessions of a shopaholic / Touchstone Pictures

ধনী মানুষরা সবসময়ই অভিজ্ঞতাকে সবার প্রথমে প্রাধান্য দেন। এক্ষেত্রে তারা অর্থ অপচয় কিংবা ব্যয়ের চিন্তা কখনোই করেন না। তারা এটাই মনে করেন জীবনে নতুন উচ্চতায় পৌঁছাতে অভিজ্ঞতার গুরুত্ব অপরিসীম। ধনীরা প্রায়ই দেখে থাকবেন তাদের দৈনন্দিন খরচের তালিকায় বিভিন্ন দেশে ভ্রমণ, স্কাই ডাইভিং এবং জিমকে তালিকায় রাখেন।

৭. প্রথমে বিল তারপর বিশ্রাম

© depositphotos.com   © Gossip Girl / Warner Bros.

© depositphotos.com © Gossip Girl / Warner Bros.

যে সকল মানুষ তাদের স্থির খরচ সম্পর্কে খুব ভালো ধারনা পোষণ করেন তারা অন্য যে কোন ব্যক্তির চেয়ে অর্থ সুন্দরভাবে পরিচালনা করতে পারেন। সফল ও ধনী ব্যক্তিগণ সর্ব প্রথমে তাদের স্ত্রী অথবা স্থায়ী খরচ নির্বাহ করেন যাতে তারা খুব সহজে বুঝতে পারেন অন্য অর্থ দিয়ে তারা কি করবেন?

৮. সে সকল বিষয় বিনিয়োগ করুন যেগুলো আপনাকে সুখী এবং স্বাস্থ্যবান রাখে

© The Intern / RatPac Entertainment   © Sex and the city / HBO

© The Intern / RatPac Entertainment © Sex and the city / HBO

যে সকল বিষয়ে আপনার শখ এবং আকাঙ্ক্ষা কাজ করে সে সকল বিষয় নির্দ্বিধায় খরচ করুন। এতে আপনি সুখী এবং স্বাচ্ছন্দ জীবন অতিবাহিত করতে পারবেন। পাশাপাশি আপনার গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ে এক ধরনের বিনিয়োগ হয়ে যাবে।

ধরুন নক্ষত্রপুঞ্জ ভালোবাসেন তাহলে আপনি একটি টেলিস্কোপ কিনুন এর ফলে আপনার মনে শান্তি এবং সুখ কাজ করবে। আপনার কাজকর্মে ছন্দ আসবে। আপনার কাজকর্ম যত সন্দ আসবে ততই আপনার অর্থের যোগান বাড়তে থাকবে।

৯. ব্যয়হীন দিন অথবা সাপ্তাহিক ছুটি পালন

© depositphotos.com   © depositphotos.com

© depositphotos.com © depositphotos.com

সপ্তাহের যেকোনো একটা দিন আপনি সকল খরচ থেকে নিজেকে মুক্ত রাখার চেষ্টা করুন। এবং অবশ্যই এই বিষয়টার পুনরাবৃত্তি করুন। একজন যৌক্তিক মানুষ কখনোই অপ্রয়োজনীয় কোন খরচ করেন না।

১০. ভাংতি কোন অর্থ সঞ্চয় করুন এবং এগুলো ব্যবহার করুন

© depositphotos.com

© depositphotos.com

অনেকেই ভাংতি পয়সা এদিক সেদিক রাখেন এবং এদের যথাপোযুক্ত ব্যবহার করেন না। আপনি মনে রাখবেন, একটি পয়সা সঞ্চয় এর অর্থ হল একটি পয়সা আয়। অবশ্যই ভাঙতে কোন পয়সা হাতের নিকটে রাখুন এবং ছোটখাটো খরচ সেগুলো দিয়ে নির্বাহ করার চেষ্টা করুন এর ফলে আপনার খরচ এর মাত্রা কমবে।

১১. কোন কিছু পুরোপুরি নষ্ট হওয়ার আগ পর্যন্ত মেরামত করে পুন:ব্যবহার করুন

© depositphotos.com   © depositphotos.com

© depositphotos.com © depositphotos.com

একদিকে ধনীরা যেমন নতুন নতুন বিনিয়োগ করতে ভালোবাসেন অন্যদিকে তারা তাদের ব্যবহার্য সামগ্রী শেষ কার্যকারিতা থাকা পর্যন্ত ব্যবহার করেন। এক্ষেত্রে তারা কোন মেশিন কিংবা অন্য কোন উপকরণ পুরোপুরি নষ্ট হয়ে যাওয়ার আগ পর্যন্ত মেরামত করে ব্যবহার করে থাকেন। স্বাধীনতা এই অভ্যাসটি কৃপণতা নয় বরং সম্পদের সুষ্ঠু ব্যবহার। আপনি সম্পদের সুষ্ঠু ব্যবহার করবেন ততই আপনার সম্পত্তির পরিমাণ বৃদ্ধি পাবে।

বন্ধুরা আমাদের এই অর্থ সঞ্চয় এর টিপস গুলো কেমন লাগলো? কোন টিপসটি আপনারা সবচেয়ে বেশি ভালো লেগেছে আমাদের কমেন্ট বক্সে জানান। আপনি কিভাবে আপনার অর্থ সঞ্চয় করেন সেটাও চাইলে জানাতে পারেন? সাথে থাকার জন্য অসংখ্য ধন্যবাদ...



জনপ্রিয়